চট্টগ্রামরবিবার , ৭ এপ্রিল ২০২৪
  1. অগ্নিকাণ্ড
  2. অপরাধ
  3. অপহরণ
  4. অর্থনীতি
  5. আইন বিচার
  6. আতঙ্ক
  7. আত্মহত্যা
  8. আন্তর্জাতিক
  9. আবহাওয়া বার্তা
  10. ঈদুল আযহা উদযাপন
  11. ঈদুল ফিতর উদযাপন
  12. উন্নয়ন
  13. কক্সবাজার
  14. কৃষি
  15. ক্যাম্পাস
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় রাস্তা নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ

deshbarta news
এপ্রিল ৭, ২০২৪ ২:০৯ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় রাস্তা নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ

আলামিন হোসাইন, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) এর অর্থায়নে ঝিনাইদহের শৈলকুপা  উপজেলার ৭নং হাকিমপুর ইউনিয়নের সাধুহাটি সড়ক থেকে বরিয়া (২৬৩০ মিটার) ২.৬ কিলোমিটার রাস্তা নির্মাণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে কাজ নেয়া সাব কন্ট্রাক্টে ঠিকাদার মো.উজ্জ্বল সিদ্দিকী এর বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেছেন এলাকাবাসী। নির্মাণ কাজে অত্যন্ত নিম্নমানের নাম্বারবিহীন ইট ও মাটিযুক্ত বালু ব্যবহার করা হচ্ছে। কাজ তদারকিতে শৈলকুপা উপজেলার এলজিডি’র কর্মকর্তাদের গাফিলতি আছে বলেও অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা।

জানা গেছে, এলজিইডি’র ২০২১-২২ অর্থ বছরের প্রকল্পে কার্পেটিং কাজের অনুকূলে ১ কোটি ৪৪ লাখ ২৯ হজার ২২৭ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। শৈলকুপা উপজেলার সাধুহাটি সড়ক থেকে বরিয়া রাস্তার ২.৬ কিলোমিটার নির্মাণ কাজ পায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স এহসান হাবিব রনক এন্টারপ্রাইজ। তারা আবার সাব কন্ট্রাক্টে ঠিকাদার মো. উজ্জ্বল সিদ্দিকী কাজের দায়িত্ব দেন। নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে রাস্তার দুই পাশের কাটা মাটির মিশ্রিত বালি দিয়ে বক্স না করেই নিম্নমানের ইট খোয়াসহ নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করছে রাস্তায়। এলাকাবাসী ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধির অনিয়মের অভিযোগের পর কাজ বন্ধ রাখার অনুরোধ করা হলেও এখনো অনিয়মের মাধ্যমে কাজ দিয়েই উক্ত কাজ সমাপ্ত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

স্থানীয়দের অভিযোগ, এ রাস্তায় নিম্মমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহারের ফলে কিছুদিনের মধ্যেই ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়বে।।

সরজমিনে বরিয়া থেকে প্রায় ১ কিলোমিটার সড়ক ঘুরে দেখা যায়, সড়কের কাজে বালুর পরিবর্তে কাদামাটি দিয়ে তার উপর নিম্নমানের পুরোনো ইটের খোয়া ছিটিয়ে দেয়া হচ্ছে। নিম্নমানের ইটের ভাঙা অংশ (রাবিশ) দিয়ে কাজ করে যাচ্ছে। পুরোনো সড়কের পিচ না উঠিয়ে তার উপরই নতুন কাজ করা হচ্ছে। তাতেও নিম্নমানের ইটের খোয়া ব্যবহার করা হচ্ছে। রাস্তার এজিং এর কাজে নতুন ইটের বদলে পুরাত ইট ব্যবহার করা হচ্ছে। রাস্তার কাজে স্থানীয় সরকার প্রকৗশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) কাউকে এসে তদারকি করতে দেখা যায়নি। এমনকি ইটে পা দিয়ে চাপ দিলে তা ভেঙে যাচ্ছে।

এই বিষয়ে এলজিডির শৈলকুপা উপজেলা প্রকৌশলী মো. রুহুল আমিন বলেন, এই কাজে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে টেন্ডারের চুক্তিমূল্য ধরা হয়েছে ১ কোটি ৪৪ লাখ ২৯ হাজার ২৩৭ টাকা। উন্নয়ন কাজের চুক্তি মোতাবেক কাজ না হলে এবং কাজে অনিয়ম হলে ঠিকাদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শৈলকুপা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মেহেদী ইসলাম বলেন, এ সড়কে অনিয়ম হচ্ছে সেটা আমার জানা নেই। সড়কে কাজে অনিয়ম হচ্ছে এমন কোনো অভিযোগ এলাকাবাসী আমাকে জানায়নি। অন্যদিকে, অভিযুক্ত ঠিকাদার মো. উজ্জ্বল সিদ্দিকী কাজের অনিয়মের বিষয় অস্বীকার করে অভিযোগের তোয়াক্কা না করে উল্টো এলজিইডি কাজ বুঝে নিবে এবং তাদের বুঝিয়ে দিবে বলে হুঙ্কার দেন।

ঝিনাইদহ এলজিডির নির্বাহী প্রকৌশলী বলেন, খোঁজখবর নিয়ে বিষয়টি জানার চেষ্টা করছি।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।