চট্টগ্রামরবিবার , ১৪ এপ্রিল ২০২৪
  1. অগ্নিকাণ্ড
  2. অপরাধ
  3. অপহরণ
  4. অর্থনীতি
  5. আইন বিচার
  6. আতঙ্ক
  7. আত্মহত্যা
  8. আন্তর্জাতিক
  9. আবহাওয়া বার্তা
  10. ঈদুল আযহা উদযাপন
  11. ঈদুল ফিতর উদযাপন
  12. উন্নয়ন
  13. কক্সবাজার
  14. কৃষি
  15. ক্যাম্পাস
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দুর্গাপুর-কলমাকান্দায় ঐতিহ্যবাহী কৃষক আনন্দ মেলা চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

deshbarta news
এপ্রিল ১৪, ২০২৪ ৪:৩৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

দুর্গাপুর-কলমাকান্দায় ঐতিহ্যবাহী কৃষক আনন্দ মেলা চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি

ওমর ফারুক আহম্মদ (নেত্রকোণা প্রতিনিধি):

বাংলা নতুন বছরকে বরণ করে নিতে নেত্রকোণা দুর্গাপুর ও কলমাকান্দায় শুরু হচ্ছে দুই দিনব্যাপী কৃষক আনন্দ মেলা। এ নিয়ে উৎসব মুখর পরিবেশে চলছে নানা আয়োজন।নেত্রকোণা – ১ (দুর্গাপুর-কলমাকান্দা) আসনের সংসদ সদস্য ও কৃষক আনন্দ মেলা উদযাপন কমিটির প্রধান উপদেষ্টা আলহাজ্ব মোশতাক আহমেদ রুহীর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হবে এ মেলা।আগামী ১৪ ও ১৫ এপ্রিল দুই দিনব্যাপী দুর্গাপুরের দুর্গাপুরের এম.কে.সি.এম পাইলট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ ও কলমাকান্দা স্টেডিয়াম মাঠে একযোগে শুরু হবে এ কৃষক মেলা। স্থানীয় কৃষক ও প্রবীণ জনগোষ্ঠীকে সম্মান প্রদান তথা সকল শ্রেণিপেশার মানুষকে একটু আনন্দ এবং নতুন প্রজন্মের কাছে বাঙালির আদি ঐতিহ্য তুলে ধরতে এ মেলার আয়োজন করা হচ্ছে।এতে থাকছে আবহমান বাংলার গ্রামীণ ঐতিহ্যের নানা ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। এই আয়োজনে গান শোনাবেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী কুদ্দুস বয়াতি, সুকুমার বাউল, ঐশী, লায়লা এবং আভাস ব্যান্ডের তুহিন।কৃষক আনন্দ মেলা ঘিরে দুই উপজেলার বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে। তারা সমগ্র আয়োজন দেখতে মুখিয়ে আছেন। এই আয়োজন ঘিরে এরই মধ্যে দুই উপজেলায় তুমুল সাড়া পড়েছে। ফেসবুকে দেখা গেছে মানুষের আগ্রহের চূড়ান্ত রূপ। মেলা নিয়ে একের পর এক পোস্ট, ছবি, প্রস্তুতির ভিডিও দেখা গেছে নাগরিক টাইমলাইনে।একদিকে ঈদের আনন্দ অপরদিকে বাংলা নববর্ষ বরণ, দুই মিলে এবার দুর্গাপুর-কলমাকান্দাবাসী আহ্লাদে আটখানা। এমন উপলক্ষ্য এবারই প্রথম।এই আয়োজন নিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা সোহরাব হোসেন তালুকদার বলেন, দুর্গাপুর-কলমাকান্দায় এমন আয়োজন এবারই প্রথম। এমন আয়োজনের জন্য সংসদ সদস্যকে ধন্যবাদ জানাই। এমন আয়োজন সত্যিই আনন্দের।‌কবি ও সাংবাদিক মামুন রণবীর বলেন, কৃষক আনন্দ মেলা মানে বাংলার শেকড় সন্ধান করা। আমরা শেকড় থেকে শিখরে পৌঁছে গিয়ে নিজেদের প্রকৃত বাংলা কৃষ্টি-সংস্কৃতি ভুলে যাই। কিন্তু আমাদের সংসদ সদস্য নিজের শেকড় ভুলেননি। তিনি পরম যত্ন ও আগ্রহ নিয়ে এই মেলা আয়োজন করছেন। যেটি সাধারণ থেকে অসাধারণ সব শ্রেণি পেশার মানুষকে আপ্লুত করেছে, আনন্দিত করেছে। আমি সাধুবাদ জানাই।দুর্গাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম সফিক বলেন, এটি আমাদের এমপির দীর্ঘদিনের স্বপ্ন। উনি সব থেকে বেশি প্রাধান্য দেন কৃষকদের। সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষকে নিয়ে ওনার স্বপ্ন। এই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে তিনি নিরলসভাবে কাজ করছেন। দুর্গাপুর ও কলমাকান্দা উপজেলায় এ কৃষক আনন্দমেলা এত বড় আয়োজন এ দুই উপজেলায় এ প্রথম। তার দিক নির্দেশনায় ও উনার নিজস্ব অর্থায়নে এ মেলা হবে। আমরা দলীয় নেতৃবৃন্দসহ কৃষক শ্রমিকরা মিলে এ মেলা স্বার্থক করার জন্য কাজ করছি। আশা করি ১৪ ও ১৫ তারিখের কৃষক আনন্দ মেলা দেশের ভিতর উপজেলা লেভেলে সর্বোচ্চ আনন্দ মেলা করতে পারবো। এ কাজে সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।কলমাকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসাদুজ্জামান বলেন, যারা অক্লান্ত পরিশ্রম করে দেশের অর্থনীতির চাকা ঘুরানোসহ আমাদের খাদ্যের জোগান দিয়ে থাকেন, তারা হলো কৃষক জনগোষ্ঠী। সমাজে ওনাদের কথা অনেকেই ভাবেন না। ওনাদের আনন্দ দিতে স্থানীয় সংসদ সদস্য মোশতাক আহমেদ রুহী যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন তা সত্যি প্রশংসনীয়।
নেত্রকোণা- ১ (দুর্গাপুর-কলমাকান্দা) আসনের এমপি ও কৃষক আনন্দ মেলার প্রধান উপদেষ্টা মোশতাক আহমেহ রুহী বলেন, দুর্গাপুর ও কলমাকান্দা উপজেলার কৃষকসহ সর্ব সাধারণের মাঝে ঈদ ও বাংলা নববর্ষের আনন্দ ভাগাভাগি করার জন্য আমার এ আয়োজন। মেলা উপভোগ করার জন্য সকলকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।