চট্টগ্রামশনিবার , ২৫ মে ২০২৪
  1. অগ্নিকাণ্ড
  2. অজ্ঞাত
  3. অনশন
  4. অন্যরকম
  5. অপমৃত্য
  6. অপরাধ
  7. অপহরণ
  8. অবৈধ
  9. অভিনন্দন
  10. অর্থনীতি
  11. অসহায় দরিদ্র
  12. আইন বিচার
  13. আইন শৃঙ্খলা
  14. আতঙ্ক
  15. আত্মহত্যা
আজকের সর্বশেষ সবখবর

হাটহাজারিতে বাস সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহিত ২।

deshbarta news
মে ২৫, ২০২৪ ৫:১৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

হাটহাজারিতে বাস সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহিত ২।

হাটহাজারী ( চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : মো: আবু তৈয়ব।

চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারীতে বাস সিএনজি (অটোরিকশা) মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহিত হয়।

শনিবার ( ২৫ মে) চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী উপজেলার ৩নং মির্জাপুর ইউনিয়নের কালিদাশ চৌধুরী হাট প্রকাশ মইগ্যার হাট এলাকায় চট্টগ্রাম- খাগড়াছড়ি মহাসড়কে বাস ও সিএনজি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে এ ঘটনা ঘটে এতে দুজন সিএনজি অটোরিকশার যাত্রী মারা যায়।

নিহত দুজন হলেন, হাটহাজারীর ফরহাদাবাদ ইউনিয়নের উদালিয়া এলাকার বাসিন্দা আব্দুল মোতালেব টুকু (৭০) ও ধলই ইউনিয়নের মনিয়াপুকুর এলাকার বাসিন্দা মো. আবছার (৫৫)। তারা দুজনই অটোরিকশার যাত্রী। এঘটনায় আহত দুজনের নাম জানা যায়নি। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাজিরহাট হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক মো. আনিসুল ইসলাম।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, চট্টগ্রামমুখী একটি যাত্রীবাহী বাস বেপরোয়া গতিতে এসে বিপরীমুখী থাকা অটোরিকশায় ধাক্কা দিয়ে অটোরিকশাটি দুমড়ে মুচড়ে যায় এবং দুই যাত্রী ঘটনাস্থলে মারা যান। এরপর অটোরিকশার চালকসহ দুজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। চালকসহ অটোরিকশায় মোট ৪ যাত্রী ছিল।

নাজিরহাট হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক মো. আনিসুল ইসলাম বলেন, আমরা খবর পাওয়া মাত্র ঘটনাস্থলে এসে দুটি মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছি। তারা দুজন সিএনজি অটোরিকশার যাত্রী ছিলেন। আহত সিএনজি চালকসহ আরও এক যাত্রীকে আহত অবস্থায় একটি হাসপাতলে ভর্তি করা হয়েছে বলে শুনেছ। এঘটনায় চালকসহ ওই বাসটিকে আটক করা হয়েছে। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন হাটহাজারী উপজেলার নির্বাহী অফিসার এবিএম মশিউজ্জামান তিনি বলেন আমি দূর্ঘটনা হওয়ার কথা শুনে সাথে সাথে ঘটনা স্থলে আসি আর জানতে পারি ঘটনাস্থলে দুজন মারা যায়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বাস এবং বাসের ড্রাইভারকে জব্দ করছে এবং ড্রাইভারের বিরুদ্ধে যতদ্রুত পারি আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

স্থানীয়রা বলেন আর কত তাজা প্রাণ গেলে স্থানীয় এমপি মহোদয় বা জনপ্রতিনিধিদের মাথার টনক নড়বে তারা বলেন এভাবে আর কত মায়ের বুক খালি হবে আর কত ছেলেমেয়ে বাবা ছাড়া, ভাই ছাড়া, জামাই ছাড়া হবে আমাদের একটাই দাবি এই মহাসড়কে ডিবাইট চাই আমরা।এক পথচারী বলেন চট্টগ্রাম খাগড়াছড়ি থেকে যে বাস গুলো চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে এই বাস গুলোর নিদির্ষ্ট একটা সময় থাকে এই সময়ের মধ্যে চট্টগ্রামে পৌছানোর জন্য এই বাস গুলোর ড্রাইভাররা বাস গুলো খুব দ্রুতগতিতে চালাইতে চাই যার কারণে অধিকাংশ সড়ক দুর্ঘটনার কারণ। আবার অন্যধিকে সিএনজি অটোরিকশা চালকরা বেপরোয়া গতিতে সিএনজি অটোরিকশা চালায় যার কারণে সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে।

উল্লেখ্যযে গত নভেম্বর মাসে ( ২০২৩) চট্টগ্রাম – খাগড়াছড়ি মহাসড়কের হাটহাজারী উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের চারিয়া বোর্ডস্কুল এলাকায় বাস সিএনজি (অটোরিকশা) সংঘর্ষে এই পরিবারের সাতজন নিহত হয়েছে।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।